শাওনকে ক্রিকেট খেলার সরঞ্জামাদি দিয়ে ভারত সফরে পাঠালেন পিরোজপুরের ক্রিড়াপ্রেমী নিঝুম

পিরোজপুর প্রতিনিধি :

পিরোজপুরের কৃতীসন্তান বাংলাদেশ জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধি ক্রিকেট দলের খেলোয়ার মো. শাওন সিকদার কে ক্রিকেট খেলার পুরো সেট সহায়তা দিলেন পিরোজপুর ক্রিকেট একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজমল হুদা নিঝুম। আজ বৃহস্পতিবার শহরের রোজ গার্ডেনে বাংলাদেশ জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধি ক্রিকেট দলের অসহায় খেলোয়ার মো. শাওন সিকদার কে ক্রিকেট খেলার পুরো সেট সহায়তা দেন আজমল হুদা নিঝুম। ক্রিকেট সরঞ্জামাদির অভাবে ভারত সফর যখন অনিশ্চিত তখনই সাহায্যেও হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন নিঝুম বলে জানিয়েছেন ক্রিকেটার শাওন

বৃহস্পতিবার সকালে ভারতে একটি আন্তর্জতিক সিরিজ খেলার উদ্দিশ্যে ঢাকায় গিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেট দলের শাওন সিকদার। এবারের ভারত সফরে শাওন ওয়ান্ডে ম্যাচ, টিটুয়েন্টি ম্যাচ টেষ্টম্যাচ সহ পুরো সিরিজ খেলবেন তিনি। বাংলাদেশ জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেট দলের কৃতী ব্যাটসম্যান উইকেট কিপার মো: শাওন সিকদার এর আগেও গত বছর জুলাইয়ে ইংল্যান্ডে ফিজিক্যাল ডিজ্যাবিলিটি ট্রাই ন্যাশন টি টুইয়েন্টি সিরিজের ম্যান অব দ্য সিরিজ ম্যান অব দ্য ম্যাচ পুরস্কার জিতে। ইংল্যান্ড পাকিস্তানের সঙ্গে দলের হয়ে খেলে তার অর্জন। এছাড়াও খেলেছেন ভারত, পাকিস্তান আফগানিস্তানের বিরুদ্ধেও। শাওন মেধা অন্বেষণের আট লাখ প্রতিযোগীর সঙ্গে চূড়ান্ত বাছাইয়ে ১৫-তে টিকে এখন সে বাংলাদেশ জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেট দলের দাপুটে খেলোয়াড়। 

শাওন সিকদার পিরোজপুর সদর উপজেলার কুমিরমারা আশ্রয়ণ প্রকল্পের মৎস্যজীবী বাবুল সিকদার মা নাসিমা বেগমের বড় সন্তান। শাওন কখনও ইজিবাইক চালিয়ে কখনওবা বাবার পেশায় সাহায্য করে পরিবারের জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। ডান পায়ের পাতা শৈশবে পুড়ে গেলে তার জীবনে নেমে আসে প্রতিবন্ধীত্ব। তবে বাধা রুখতে পারেনি তার ক্রিকেটার হওয়ার পথচলা।  গ্রামের মাঠে খেলতে খেলতে শাওন আজ জাতীয় পর্যায়ের ক্রিকেটার। হেড কোচ রাশেদ খান, কোচ মনিতা হাসান, ম্যানেজার হাসান সবার সহযোগিতায় বাংলাদেশ জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেট দলটি যে দেশের জন্য আশার খোরাক যোগাচ্ছে তা শাওনকে দেখেই বোঝা যায়। 

ক্রিকেটার শাওন সিকদার বাবা বাবুল সিকদার জানান, এবারের ভারত সফরে তার ছেলে যেতে পারবে এটা তিনি কখনো কল্পনা করেননি। কারন শাওনের ক্রিকেট সরঞ্জামাদি ছিলোনা। আর ক্রিকেট সরঞ্জামাদি জুতা, ব্যাট, প্যাড ইত্যাদি ছাড়া খেলোয়ার শিবিরে অংশগ্রহন করা অসম্ভব। অনেকে যখন মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন তখন ক্রিকেট প্রেমী আজমল হুদা নিঝুম ব্যাক্তিগত ভাবে শাওনকে প্রায় ২০ হাজার টাকার খেলার সরঞ্জামাদি ফ্রি দিয়েছেন। 

বাংলাদেশ জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধি ক্রিকেট দলের খেলোয়ার মোশাওন সিকদার জানানগ্রাম থেকে খেলা শুরু করে ঢাকার গাজিপুর গ্লাডিওটস ক্লাবের হয়ে খেলেছি বহুদিন। ইংল্যান্ড সফরে ভারতপাকিস্তান  আফগানিস্তানের সহ বিভিন্ন দেশের সাথে খেলায় অংশ গ্রহন করেছি পেয়েছি সন্মাননাও। কিন্ত এবারের ভারত সফরে যাওয়া প্রায় অনিশ্চিত হয়ে পড়ে ক্রিকেট খেলার সরঞ্জামাদির অভাবে। অনেকেই আশা দিয়েছে কিন্ত পাশে কেউ দাড়ায়নি। সফর যখন অনিশ্চিত ঠিক তখনই ক্রিকেট প্রেমী আজমল হুদা নিঝুম ভাই আমার পাশে দাড়িঁয়েছে। দিয়েছেন ক্রিকেট ব্যাটহেলমেটপ্যাডথাইজুতাগেঞ্জিক্রিকেট বল সহ পুরো একটি সেট। ক্রিকেট সরঞ্জামাদির  সেটটি না পেলে আমি ভারত সফরে যেতে পারতাম না।