আতরখীলিতে বাল্য বিবাহের অভিযোগ করায় অভিযোগকারীর বাড়ীতে হামালা

(মোঃ ছগির হোসেন; ভান্ডারিয়া, পিরোজপুর) :

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার আতরখালী গ্রামে অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে (সনিয়া আক্তার) বাল্য বিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনায় অভিযোগকারী . ছত্তার মোল্লার বাড়ীতে হামলা চালিয়েছে বর কনে পক্ষ।

. ছত্তার মোল্লা জানান, রবিবার রাতে তাদের একই বাড়ির মোঃ ইয়াছিন মোল্লার মেয়ে আতরখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী সনিয়া আক্তারকে একই বাড়ির হাবিব মোল্লার ছেলে মাহিন মোল্লার সঙ্গে বিয়ে দেয়। সংবাদ পেয়ে বিয়ের পরের দিন ভা-ারিয়া থানা  পুলিশ  তদন্তে গেলে পুলিশের কাছে আবদুস ছত্তার মোল্লা বিয়ের সত্যতা নিশ্চিত করে।   পুলিশ ঘটনা স্থল ত্যাগ করার পর পরই বর মাহিন মোল্লা, তার অপর দুই ভাই তুহিন মোল্লা মাসুদ মোল্লা এবং পিতা হাবিব মোল্লা তার ঘরে হামলা চালায় এবং তাকে জীবন নাশের হুমকি দেয়। বর্তমানে বর কনে পক্ষের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বৃদ্ধ ছত্তার মোল্লা। ঘটনায় বৃদ্ধ ছত্তার মোল্লা ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে।
আতরখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ননি গোপাল সমদ্দার জানান, শুনেছি মেয়েটির বিয়ে হয়েছে। বিদ্যালয়ের ভর্তি রেজিষ্ট্রার অনুযায়ী তার জন্ম তারিখ সেপ্টেম্বর ২০০৬ এবং সে অষ্টম শ্রেণীর নিয়মিত ছাত্রী।
 ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহীন আক্তার সুমী বলেন, ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে